আপনার Work Experience এর উপর ভিত্তি করে কানাডায় চাকরি খুঁজবেন কিভাবে?

আপনার Work Experience এর উপর ভিত্তি করে কানাডায় চাকরি খুঁজবেন কিভাবে?

একটি নতুন দেশে চাকরি খোঁজা একটু কঠিন লাগতে পারে, কিন্তু সঠিক পদ্ধতি এবং সোর্স খুঁজে বের করতে পারলে কাজটি খুবই সহজ হয়ে যাবে। কানাডার ক্ষেত্রে ইমিগ্রেশন এর পূর্বেই যদি আপনি চাকরি অফার নিশ্চিত করতে পারেন তবে আপনার CRS স্কোর অনেকাংশে বেড়ে যাবে এবং এর ফলে আপনার পার্মানেন্ট রেসিডেন্সির জন্য আমন্ত্রণ পাওয়ার সম্ভাবনা ও বাড়বে। কিন্ত কিভাবে নিজের দেশের থেকে অন্য দেশে চাকরি খুঁজবেন তা নিয়ে দুশ্চিন্তায় আছেন? আপনি যদি আপনার বর্তমান কাজের অভিজ্ঞতার উপর ভিত্তি করে কানাডায় চাকরি করার কথা ভেবে থাকেন, তাহলে এই ব্লগটি আপনাকে efficiently চাকরি খুঁজে বের করতে সাহায্য করবে।

Proper research: আপনার স্কিল অনুযায়ী কানাডিয়ান চাকরির বাজার নিয়ে গবেষণা শুরু করুন। আপনার স্কিলের চাহিদা, কোনো জব গুলো বেশি available আছে, কোন কোম্পানি গুলো বেটার স্যালারি অফার করছে, পরিবেশ কেমন, কোম্পানির গ্রোথ কেমন ইত্যাদি বিষয়গুলো নোট রাখুন।

CV & Cover letter: কানাডার জব এর requirements অনুযায়ী আপনার সিভি তৈরি করুন। Relevant experience থাকলে তা বিস্তারিত ভাবে উল্লেখ করুন। সিভিতে আপনার যোগ্যতা, স্কিল, অর্জন গুলো গুছিয়ে হাইলাইট করুন। তবে খেয়াল রাখবেন সিভি যেন clear এবং concise হয় এবং কানাডিয়ান এমপ্লয়িদের requirements অনুযায়ী হয়।

Online job platform: কানাডায় চাকরি খুঁজতে LinkedIn, Indeed, এবং Workopolis-এর মতো অনলাইন জব প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করুন। এই প্ল্যাটফর্মগুলিতে একটি professional profile তৈরি করুন এবং আপনার কাজের অভিজ্ঞতা, স্কিল এবং অর্জনগুলোকে হাইলাইট করুন। নির্দিষ্ট ইন্ডাস্ট্রির গ্রুপগুলোতে জয়েন করুন এবং অন্যান্যদের সাথে actively engage করুন নিজেকে।

Build network: কানাডায় চাকরির খোঁজার জন্য নেটওয়ার্কিং অত্যন্ত জরুরী। এর জন্য আপনি বিভিন্ন জব ফেয়ার, industry events attend করতে পারেন। অনলাইন ফোরাম গুলোতে জয়েন করুন যার মাধ্যমে আপনি কানাডিয়ান প্রফেশনালদের সাথে interact করতে পারবেন, এডভাইস নিতে পারবেন এবং প্রশ্ন ও করতে পারবেন।

Reach to Canadian Recruiters: Actively কানাডিয়ান recruiter দের সাথে যোগাযোগ করুন যারা আপনার skill এবং experience এর প্রতি আগ্রহী হতে পারে। Research companies যেগুলো আপনার skill এর সাথে relevant তাদের সাথে কাজ করার আগ্রহ প্রকাশ করে targeted application পাঠাতে পারেন।

Consider Volunteering and Internships: আপনি যদি সরাসরি চাকরি পেতে চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হন, তাহলে কানাডিয়ান কাজের অভিজ্ঞতা অর্জনের জন্য Volunteering বা Internships প্রোগ্রামে অংশগ্রহণ করুন। এর মাধ্যমে আপনি স্থানীয়দের সাথে পরিচিত হতে পারবেন এবং তাদের রেফারেন্স ের মাধ্যমে জবে ঢুকতে পারবেন।

Professional Licensing and Certification: কানাডায় কিছু নির্দিষ্ট পেশায় কাজ করার জন্য professional licensing এবং certificate এর প্রয়োজন হতে পারে। তাই যথেষ্ট সময় হাতে রেখেই research শুরু করুন এবং নিজের সার্টিফিকেট রেডি করুন। যেকোন প্রয়োজনীয় লাইসেন্সিং বা সার্টিফিকেট আপনার relevant চাকরির খুঁজে পাওয়ার সম্ভাবনা বাড়িয়ে তুলতে পারে।

ইমিগ্রেশনের দিক থেকে কানাডা অত্যন্ত চাহিদা সম্পন্ন দেশ। এর ফলে চাকরির বাজারে পাবেন প্রতিযোগিতা। এই competitive market এ নিজেকে সব থেকে উপরে রাখতে হলে প্রয়োজন এই নিয়ে যথেষ্ট পরিমাণ জ্ঞান। তাই পরিপূর্ন যাচাই বাছাই করে এরপর জব এর জন্য এপ্লাই করা উচিৎ। এক্ষেত্রে যাদের কানাডায় পূর্বে কাজ করার অভিজ্ঞতা আছে তারা অনেকাংশে প্রায়োরিটি পায়। কিন্তু আপনার যদি সেরকম কোন অভিজ্ঞতা না থাকে তবে আপনার সিভি, লাইসেন্স বা সার্টিফিকেট-ই আপনাকে জব পেতে সাহায্য করবে। তাই নিজের যে স্কিলগুলো আছে তার সাথে relevant experience গ্রহণের চেষ্টা করুন এবং নিজের সার্টিফিকেট গুলো প্রস্তুত রাখুন। কানাডার জব মার্কেট এ প্রতিযোগিতা বেশি হলেও opportunities রয়েছে অনেক। তাই সে হিসেবে নিজেকে প্রস্তুত করে তুলুন।

Leave a Comment