Is leaving your home country a terrible choice?

Is leaving your home country a terrible choice?

দেশের বাইরে চলে গেলে পরিবার-বন্ধুবান্ধব দের থেকে দূরে চলে যাবেন। দেশের খাবার খেতে মন কাঁদবে। একা হয়ে যাবেন। এই ভয়গুলোই কি আপনার দেশের বাইরে সেটেল হওয়ার সিদ্ধান্তে বাধা হয়ে দাড়াচ্ছে? একবার শুধু নিজের ভয়গুলো কে পেছনে ফেলে দেশের বাইরে পাড়ি জমান। তারপর নিজেই দেখবেন কিভাবে আপনার জীবন বদলে গেছে। টাকা-পয়সা, সন্তানদের শিক্ষা, চিকিৎসা, নিরাপত্তা কোনো কিছু নিয়েই আর টেনশন নিতে হবে না।

খেয়াল করে দেখেছেন গত কয়েক দশক থেকেই নিজের দেশ ছেড়ে সম্পূর্ন নতুন একটি দেশে জীবন যাপন শুরুর যেন হিড়িক পড়েছে। আগে দেশ ছেড়ে যাওয়ার বিষয়টা আতংকের হলেও এখন এটি খুব exciting একটি বিষয়। নতুন দেশ, নতুন মানুষ, মজাদার সব খাবার, ঘুরার জন্য অসংখ্য দারুন দারুন জায়গা, এ যেন এক নতুন adventure। নিজের দেশ ছেড়ে যাওয়াটা কিছুটা কষ্টের হলেও এই sacrifice এর বিনিময়ে আপনি এবং আপনার পরিবার যে life পাবেন তা কল্পনার বাইরে। ৩য় বিশ্বের দেশগুলো বিভিন্ন দিক দিয়েই পিছিয়ে আছে। যার কারনে এই দেশ গুলোতে বসবাস করা প্রতিটি মানুষের মুখে প্রতিদিন একটা কথা কমন শুনতে পাওয়া যায়। “ইশ যদি দেশ ছেড়ে চলে যেতে পারতাম।” বিদেশে সেটেল হওয়ার সুযোগ পেয়ে তা স্বদিচ্ছায় ছেড়ে দিয়েছে এমন কাউকে কি খুঁজে পেয়েছেন কখনো? 

আপনি যখন দেশের বাইরে যাবেন তখন বুঝতে পারবেন উন্নত মানের জীবন যাত্রা বলতে আসলে কি বোঝায়। নিজের সন্তানদের জন্য আন্তর্জাতিক মানের শিক্ষা ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে পারবেন। আপনার বাবা মায়ের জন্য উন্নত মানের চিকিৎসা ব্যবস্থা পাবেন। পরিবারের মানুষগুলোর জীবনের নিরাপত্তা নিয়ে ভাবতে হবে না। তবে সবচেয়ে বেশি যে সুবিধা তাদের দিতে পারবেন তা হলো financial security। দেশের বাইরে সেটেল হলে আপনি যে পরিমাণ জব এবং বিজনেস opportunity পাবেন তার সামনে দেশ ছেড়ে আসার বেদনা কিছুই না। স্বল্প সময়ের জন্য পাওয়া এই দুঃখ ও কমে যাবে যখন দেখবেন আপনার এবং আপনার পরিবারের ভবিষ্যতে নিরাপদ হয়ে গেছে। ৩য় বিশ্বের দেশগুলোর অর্থনৈতিক সমস্যার পাশাপাশি রয়েছে নিরাপত্তা নিয়ে চিন্তা। অনুন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থা এবং আর্থিক অস্থিতিশীলতা জীবনকে যেন দূর্বিষহ করে তোলে। 

কিন্ত আপনি যখন দেশের বাইরে চলে যাবেন এরপর আর দেশে ফিরতে মন চাইবে না। পরিষ্কার রাস্তাঘাট, ফ্রেশ বাতাস, খাবারে পাবেন নানান variation আপনাকে খুব দ্রুতই আপন করে নিবে। তাছাড়া দেশের বাইরে গেলে আপনি বিশ্বব্যাপী বিভিন্ন দেশের মানুষের সাথে পরিচিত হবেন, তাদের সংস্কৃতি সম্পর্কে জানতে পারবেন। নিজ দেশ ছেড়ে অন্য দেশে নতুন করে জীবন শুরু করা অনেকটা চ্যালেঞ্জ এর মতোই যার বিনিময়ে আপনি পাবেন নিজের ক্যারিয়ার তৈরির অগণিত opportunities এবং আপনার প্রতিদিনের একঘেয়ে জীবন থেকে পাবেন ব্রেক। আপনার ক্যারিয়ার এর মোড় ঘুরিয়ে নিতে পারবেন সম্পূর্ণ নতুন দিকে। সারা জীবন পরিশ্রম না করে যখন স্বল্প পরিশ্রমেই নিজের আর্থিক অবস্থা পরিবর্তনের সুযোগ রয়েছে তাহলে কেন দেশের মায়ায় পড়ে থাকবেন?

প্রতিদিনের একঘেয়ে জীবন, একঘেয়ে খাদ্যাভ্যাস থেকে নিজেকে মুক্তি দিতে হলেও আপনার দেশের বাইরে মাইগ্রেট করা উচিৎ। কাজের পাশাপাশি নতুন নতুন সব ভ্রমণের জায়গা explore করতে পারবেন। ভিনদেশী মানুষদের ভিনদেশী সব খাদ্য উপভোগ করতে পারবেন৷ সবচেয়ে বড় কথা হলো যখন দেখবেন আপনার এই সিদ্ধান্ত আপনার পরিবারের জীবন বদলে দিয়ে আরো উন্নত করে তুলেছে তখন আর দেশ ত্যাগের আফসোস থাকবে না। কে না চায় তার নিজের পরিবারকে আর্থিক, সামাজিক নিরাপত্তা দিতে? কিন্ত এই চাওয়াকে বাস্তবে রুপ দিতে পারবেন দেশের বাইরে সেটেল হলেই।

আপনার আশেপাশের প্রায় সবাই দেশের বাইরে চলে যাচ্ছে উন্নত জীবন পেতে। তাহলে আপনি দেরি করছেন কেন? এখনো কি দেশের বাইরে সেটেল হতে ভয় পাচ্ছেন? 

Leave a Comment